করর কচ কচ। মরচে পড়েছে হে। তবু দেখবে। পুরোটাই দেখবে। অডিও ভিশুয়াল রাউণ্ড। বিখ্যাত মনীষীদের নামকরা উক্তি মনে পড়বে, ঢেলে এসো রচনায়। করর কচ কচ। “সাকা চলতিসে না। আর চলতিসে না সাকা।” কে বলেছিল? ঠিক! রিকশাসম্রাট সেন্টু সিনিয়র। তখনও বাজারে কুড়ি পয়সা চলত। পাঁচ পয়সার চৌকো কয়েন গুলোও। তৃতীয় মুদিয়ালির যুদ্ধে কী বলেছিলেন প্রতাপাদিত্য সেলিমকুমার? “তুই আমার কিচ্ছু ছিঁড়তে পারবি না। আমার বাবা তোর বাপের বস।” তা সেলিমকুমারের চশমা গড়াগড়ি খেয়েছিল বটে যুদ্ধক্ষেত্রে। ঝিকিমিকি লাগছে? আজ্ঞে তা একটু ফাস্ট ফরোয়ার্ড করা কিনা? আর পজ বোতামটা ঠিক কাজ করছে না। সয়ে যাবে চোখ এক্ষুণি। দি গার্ল উইথ ক্যালাইডোস্কোপ আইজ। এই উত্তরের সাথেই আপনি জিতে নিলেন এই পিতিবি থেকে ছুটি নেবার টিকিট। সঠিক উত্তর সলিল চৌধুরী। এই রোকো রোকো… করর কচ। ” অ্যাসেটত্ব ফুরিয়েছে, লায়াবিলিটি হে, লায়াবিলিটি।” হেহেহে! দারুণ স্মৃতিশক্তি তো হে তোমার! বাসক পাতা কিসে দেয়? বয়কট? তোমায়? আরিব্বাস! বেশ কেউকেটা ছিলে হে। তবে কী জানো? কেউকেটা মানে কিন্তু আসলে কেউ একটা। হেহে। তা মানে টানে বদলায় বইকি কথার। ওসব ধরতে নেই। ধরে ফেলেছিলে? এরকম একটা উক্তি তুমি ধরে ফেলেছিলে সত্যি বলে! বলিহারি যাই! যাইহোক। সামনে দেখো! “ইফ গাঙ্গুলি ক্যান, ইউ ক্যান টু” নাহ। এই বাঙালিগুলো গাঙ্গুলি করে করেই মরল। “আর তুমি মরলে উদ্যত বুড়ো আঙুল ভিক্ষে করে” নাজুক। নাজুক। চটপট শেষ প্রশ্নটার জবাব দাও দেখি! “আমি। আই।” আজকের বিজয়ী আপনি! আপনি! আপনি! কী হল? চোখ বুঁজুন! দেরি হয়ে যাচ্ছে!

Advertisements