– তারপর?
– তারপর তো রাক্ষসী রানি তেড়ে এলো, “হাঁউমাঁউখাঁউ মাঁনুষের, গঁন্ধ পাঁউ” বলে…
– সুয়োরানি-ই রাক্ষসী রানি ছিল? রাজা বুঝতে পারেনি?
– পারলে কি আর বে করত?
– যখন হাতিশালের হাতি আর ঘোড়াশালের ঘোড়া খাচ্ছিল তখনও না?
– তখনও না।
– ধুশ। গাধা রাজা। তারপর?
– রানি তার প্রাণভোমরা একটা কৌটে ভরে দীঘির তলায় রেখে দিল, যাতে কেউ খুঁজে না পায়।
– সেই প্রাণভোমরা খুঁজে পেলেই রানি মরে যাবে?
– রানি। আর রানির সকল রাক্ষস বাহিনী।
– তারপরেই রাজ্য জুড়ে শান্তি আসবে ঠাকুমা?

ঠাকুমা স্তব্ধ হয়ে গেলেন। তার ঝুলিতে নীলকমল কই? লালকমল কই? কোথায় ডালিমকুমার?

– আসবে, ঠাকুমা?

ঠাকুমা উত্তরহীন। রানি মরলেই সবকিছুর সমাধান? রাজা বড় বোকা। বড় অসহায়। দুয়োরানি কে বিশ্বাস করেছিলেন, তার মর্যাদা সে রাখেনি, রাজা তাড়িয়েছেন তাকে। খড় আঁকড়ানোর মত সুয়োরানিকে বিয়ে করেছিলেন। রানির মত রানি কই? কই রানি ঠাকুমার ঝুলিতে?

– ঠাকুমা? শান্তি আসবে না?

ঠাকুমা বিব্রত হন।

– নটে গাছটি মুড়োলো।

Advertisements